সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড।

মোঃ শাহাদত হোসেন, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে ইয়াকুব আলীকে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে অনাদায়ে আরও ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং ২০১ ধারায় প্রত্যেককে আরো ৭ মাসের সশ্রম কারাদন্ড এবং তিন হাজার টাকা অর্থদন্ড ও অনাদায়ে আরো এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেন।

সোমবার (২৩ মে) দুপুরে সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক বেগম সালমা খাতুন এ রায় দেন।

যাজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্তরা হলো, এনায়েতপুর থানার খুকনী কান্দিপাড়া গ্রামের মো. রইচ উদ্দিন প্রাং (৫০) এর ছেলে মো. আঃ রহিম খলিফা, একই গ্রামের মৃত শুকুর আলী সরকারের ছেলে মো. আঃ রহমান (৪৮) ও মো. ওয়াজেদ আলীর ওরফে মধুর ছেলে মো. খুশি আলম ওরফে সাইফুল ইসলাম (৪২)।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের এপিপি মো. শামছুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলা সুত্রে জানা যায়, জেলার এনায়েতপুর থানার রূপনাই (গাছপাড়া) গ্রামের ইয়াসিন মোল্লার ছেলে ইয়াকুব একই থানার খুকনী কান্দিপাড়া গ্রামের খুশি আলম ওরফে সাইফুল ইসলাম ও মো. আঃ রহিম খলিফার মেয়েদেরকে বিরক্ত করতো। সেই আক্রোশে গত ৫ জানুয়ারী ২০২০ইং সালে সন্ধ্যায় আঃ রহিম খলিফা ও আঃ রহমান মিলে পরিকল্পিতভাবে ইয়াকুব আলীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন এবং তার লাশ গুম করার জন্য খুকনী ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে জনৈক মো. নুরু হাজী ও আঃ কুদ্দুসের সরিষা ক্ষেতের সীমানায় ফেলে দেয়।

ঘটনার পরের দিন নিহত ইয়াকুব আলীর বাবা ইয়াসিন আলী এনায়েতপুর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামীদের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে হত্যা মামলায় মো. আঃ রহমান গ্রেফতার হওয়ার পর নিজেকেসহ এই হত্যাকান্ডে আরো দুইজনের জড়িত থাকার কথা শ্বীকার করেন। পরে আদালতে ১৬৪ ধারায় নৃশংস হত্যাকান্ডের বর্ণনা দেয়। দীর্ঘ সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামী খুশি আলম ওরফে সাইফুল ইসলাম ও মো. আঃ রহিম খলিফার উপস্থিতিতে অপর আসামী আঃ রহমান এর অনুপস্থিতিতে আজ আদালত এই রায় ঘোষণা করেন। পরে আসামী খুশি আলম ওরফে সাইফুল ইসলাম ও মো. আঃ রহিম খলিফাকে সাজা পরোয়ানা মূলে কারাগারে প্রেরণ করেন।