শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না এলে এদেশ উগ্র সাম্প্রদায়িক আবাস ভূমিতে পরিণত হতো- মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি।

মোঃ ইউসুফ আলী, আটোয়ারী(পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সহ-সভাপতি মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না এলে এ দেশ একটি সা¤প্রদায়িক এবং উগ্র সাম্প্রদায়িক আবাস ভূমিতে পরিণত হতো। কারণ পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পরে বাংলাদেশকে একটি সা¤প্রদায়িক রাষ্ট্রে পরিণত করবার হীন চক্রান্ত করা হয়েছিল। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নির্বাসিত করা হয়েছিল। আর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর হতে বাংলাদেশ সকল ধর্মের মানুষ নিজ নিজ ধর্ম পালন এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতি একটি উদাহরণ সৃষ্টি হয়েছে। সকল ধর্মের এবং জাতিসত্তা বিকাশের পুণ্যভূমি হিসেবে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ অনন্য দৃষ্টান্ত।

তিনি বলেন, প্রতিটি ধর্মের মূল বক্তব্য মনুষ্যত্ব, মানবতা বিকশিত ও সংরক্ষণ করা। যারা এটি উপলব্ধি করেন না তারা প্রকৃত অর্থে ধর্মান্ধ এবং তারা ধর্মকে অনুধাবন করেন না।
শনিবার (২৩ এপ্রিল ২০২২) দুপুরে হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের বাস্তবায়নে পঞ্চগড় আটোয়ারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগরে শ্রী শ্রী রাধা গৌর গিরিধারী গৌড়ীয় সেবা আশ্রমের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


শ্রী শ্রী রাধা গৌর গিরিধারী গৌড়ীয় সেবা আশ্রমের সভাপতি শ্রী কমলেশ চন্দ্র ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. মজাহারুল হক প্রধান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.তৌহিদুল ইসলাম, পঞ্চগড় হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি কল্যাণ কুমার ঘোষ, জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক অনিরুদ্ধ রায়, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তুষার কুমার চক্রবর্তী, মন্দির ভিক্তিক শিক্ষা কার্যক্রমেরর উপ-পরিচালক মো. হাবিবুল্লাহ হাবিব প্রমুখ।