শীত ও শৈত্যপ্রবাহ বইছে নীলফামারী


মো:রেজাউল করিম রঞ্জু,নীলফামারী প্রতিনিধি:
কয়েকদিনের হারকাঁপানো শীত ও শৈত্যপ্রবাহ বিরাজ করছে উত্তরের জেলা নীলফামারীতে। গতকাল শনিবার মেঘলা আকাশ আর ঘন কুয়াশা,হিমেল হাওয়া আর হাড়কাঁপানো শীতে চরম দূর্ভোগে পড়েছে এ জেলার খেটে খাওয়া দরিদ্র মানুষজন। শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় খেটে খাওয়া ও নি¤œ আয়ের মানুষজন বাহিরে বের হতে না পেরে পরিবার নিয়ে পড়েছেন দুর্ভোগে। বিশেষ করে জলঢাকা ও ডিমলা উপজেলার তিস্তা নদীর কোল ঘেঁষা গ্রাম ও চরের মানুষজন সবচেয়ে বেশী বেকায়দায় পড়েছেন। এদিকে শীতের তীব্রতার কারণে জেলায় শীতজনিত রোগের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। শিশু ও বৃদ্ধারা শীত জনিত রোগ নিয়ে হাসপাতালে বেশী ভর্তি হচ্ছেন।
গতকাল শনিবার নীলফামারীর ডিমলায় সর্বনি¤œ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯.২ ডিগ্রী সেলসিয়াস।তাপমাত্রার বিষয়ে নিশ্চিত করেন ডিমলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার।

নীলফামারীতে ছিন্নমুল মানুষের মাঝে জেলা
পুলিশ সুপারের শীতবস্ত্র বিতরণ
মো:রেজাউল করিম রঞ্জু,নীলফামারী প্রতিনিধি:
নীলফামারীতে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম। শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) মধ্যরাতে পুরাতন রেলস্টেশন, কলেজ স্টেশনসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে বসবাসরত অসহায় তিনশত জন মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন তিনি ।
এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আমিরুল ইসলাম, ডিবির ওসি খ.ম আখেরুজ্জামান, ডি.আই.ও ওয়ান আব্দুর রাজ্জাক, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রউপ সহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
জানতে চাইলে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম বলেন, ‘ঘরের বাইরে ও রাস্তায় ঠান্ডায় কাতরাচ্ছে অসহায় মানুষ। রাতের আঁধারে রাস্তায় বের হলে প্রকৃত শীতার্ত মানুষদের সন্ধান মিলে। তাই জেলা পুলিশের উদ্যোগে শীতবস্ত্র নিয়ে দরিদ্র শীতার্তদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। আমাদের এই কম্বল বিতরণ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *