মোবাইল ফোন আসক্তি বন্ধে এক সচেতনতা মূলক ক্যাম্পেইণ এর আয়োজন করা হয়।

এপিএন টিভি ঃ
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকায় বাঙালিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুল হকের সভাপতিত্বে উক্ত ক্যাম্পেইণ বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক জোটের সভাপতি মোঃ মাসুদুর রহমান লেলিন সিনিয়র সাংবাদিক রুকসানা যেমন শানু, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মমিনুর আজাদ সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হুদা, দপ্তর সম্পাদক ফিরোজ আহমেদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জুয়েল মন্ডল অত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষক নাজমুল হক সহ স্কুলের সিনিয়র শিক্ষকবৃন্দ।

বাংলাদেশ সাংবাদিক জেলা শাখার সভাপতি বলেন বাল্যবিবাহ একটি সামাজিক ব্যাধি কম বয়সী মেয়েদের বিয়ে দিলে বিভিন্ন ধরনের শারীরিক সমস্যা সৃষ্টি হয় এবং মানসিকভাবে ছেলে হওয়া মেয়েটি ভেঙে পড়েন তাই তিনি গার্জিয়ানদের অভিভাবকদের এ বিষয়ে সচেতন হওয়ার জন্য তাগিদ দেন। তিনি আরো বলেন মেয়েদের পড়াশোনা খরচ চালাচ্ছেন সরকার একটি মেয়ে পড়াশোনা করে স্বাবলম্বী হলেই দেশ ও সমাজের কল্যাণে কাজ করবে । তাই তিনি বলেন তোমাদেরকেই সচেতন হতে হবে বাবা-মারা বিয়ে দিতে চাইলেও নিজেকেই প্রতিবাদ করতে হবে, প্রয়োজনে স্কুলের শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলতে হবে।
সিনিয়র সাংবাদিক সাহিত্যিক রোকসানা জামান শানু বলেন মেয়েরা এখন সমাজের বোঝা নয় । ছেলেদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মেয়েরাও এখন বিভিন্ন জায়গায় কাজ করছে। ইভটিজিং বাল্যবিবাহ ,নারী নির্যাতন সহ যে কোন অন্যায়ের বিরুদ্ধে সবাইকে সংঘটিত হতে হবে প্রতিরোধ করতে হবে, তিনি মেয়েদের উদ্দেশ্য করে বলেন তোমাদের নিজেকে মজবুত হতে। হবে ছোট ছোট বিষয়ে স্কুলের শিক্ষক ও বাবা মায়ের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে তাহলেই সমস্যার সমাধান হবে।
সাংবাদিক জোটের সাধারণ সম্পাদক মমিনুর আজাদ বলেন, এখন মোবাইল আসক্তি একটি মারাত্মক ব্যাধি এই ব্যাধি থেকে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে ।ছাত্র-ছাত্রীদের কে তিনি বলেন মোবাইল ফোন আসক্তি একটি নেশার মত অনেকেই রাত জেগে মোবাইল চালায় এতে চোখের সঙ্গে সঙ্গে ব্রেনেও প্রচুর চাপ সৃষ্টি হয় তাছাড়া ঘুম না হলে অনেকেই মানসিকভাবে বিরক্ত বোধ করে ডিপ্রেশনে থাকে এই ডিপ্রেশন থেকে তৈরি হতে পারে আত্মহত্যার প্রবণতা । ডিপ্রেশন বা অবসাদ এর কারনেই অনেকে ঝুঁকছে মাদক সেবনে। তাই তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের কে রাত জেগে মোবাইল ফোন না চালানোর পরামর্শ দেন
বাঙালিপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক নাজমুল হক বলেন আমরা সব সময় ছাত্রছাত্রীদেরকে ক্লাসরুমে এসব বিষয়ের উপর সচেতন মূলক ও দিক নির্দেশনামূলক কথাবার্তা বলে থাকি। বাংলাদেশ সাংবাদিক জো ট নীলফামারী জেলা শাখার উদ্যোগে এই সচেতন মূলক ক্যাম্পেইনে আমাদের স্কুল আসার জন্য তিনি সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান। এরোই সাথে তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্য করে বলেন তোমাদের কেউ রাস্তাঘাটে উত্ত্যক্ত করলে আমাদের কে বা আমাকে জানাবে আমরা স্কুল কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তাছাড়া তিনি আরো বলেন এখন যেকোনো বিষয়ের অভিযোগ করার জন্য কিছু জরুরি নাম্বার যেমন ৯৯৯, ৩৩৩,১০৯,১০৬ নাম্বারগুলোতে সহযোগিতার জন্য পরামর্শ দেন। তিনি আক্ষেপ করে বলেন ইদানিং সময়ে আমাদের স্কুলের পাশে মরে কিছু বখাটে ছেলেপেলে মোটর সাইকেলে করে মেয়েদেরকে উত্তপ্ত করে আমরা এ বিষয়ে সৈয়দপুর থানার কর্তৃপক্ষ দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানাতে চাই মাসে একবার অথবা দুবার যদি একটি ডবল ডিম স্কুল ছুটির সময় তাদেরকে করেন তাহলে এই বখাটে ছেলেপেলেদের নির্মূল করা সম্ভব। প্রায় স্কুল কর্তৃপক্ষ স্কুল ছুটির পরে তাদের প্রতিরোধ করার জন্য চেষ্টা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *