ব্র্যাক কর্মীর বিরুদ্ধে নিজ গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ।

প্লাবন শুভ, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীর পার্শ্ববর্তী মধ্যপাড়ায় ব্র্যাক কর্মী অপর্ণা কুবির বিরুদ্ধে ওয়ালমি শাকারা (১২) নামে এক গারো গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ভাড়া বাসায় তাকে নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ।
গত মঙ্গলবার বিকেলে বাসা মালিক ওই গৃহকর্মীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশের জিম্মায় দেন। গতকাল বুধবার সকাল থেকে অফিস কিংবা বাসায় কোথায় খোঁজ মিলেনি অভিযুক্ত ব্র্যাক কর্মী অপর্ণা কুবির।
অভিযুক্ত অপর্ণা কুবি মধ্যপাড়া শাখা ব্র্যাকের প্রগতি কর্মসূচি সিও পদে কর্মরত। তার বাড়ি নেত্রকোনার সুসং দূর্গাপুর বিরিশিরি গ্রামে।


জানা গেছে, অপর্ণা গত তিন বছর আগে মধ্যপাড়া ব্র্যাক অফিসে যোগদান করেন। অফিসের সাথেই একটি বাসাতে ভাড়া থাকেন। গত দুইবছর পূর্বে ওয়ালমি শাকারাকে গৃহকর্মী হিসেবে আনেন তিনি। ওয়ালমি শাকারার বাড়ি নেত্রকোনায়। দীর্ঘদিন থেকে নির্যাতন চালিয়ে আসতে অপর্ণা কুবি। গত মঙ্গলবার দুপুর তিনটায় ওই অমানবিক নির্যাতন চালালে বাড়ি মালিকের বাড়ি আশ্রয় নেয় ওয়ালমি শাকারা। পরে বাড়ি মালিক কন্যা সুমা তাকে উদ্ধার করে মধ্যপাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে জানান। পুলিশ এসে ওয়ালমি শাকারাকে নিজেদের জিম্মায় নিয়ে যায়।


ওয়ালমি শাকারার অভিযোগ, দীর্ঘদিন থেকেই সামন্য ভুলে মারধর করতো অপর্ণা কুবি। সে প্রায় সময় বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতো। কিন্তু বাড়ি দুর হওয়ায় উপায় ছিল না।


বাসা মালিক কন্যা সুমি জানান, প্রায় সময় ওয়ালমি শাকারাকে মারধর করতেন ওই ব্র্যাক কর্মী অপর্ণা কুবি। মাঝেমধ্যেই ওয়ালমি শাকারা কান্নাকাটি করে আমাদের কাছে ছুটে আসতো। বলতো আমাকে গাড়িতে তুলে দেন আমি বাড়ি যাব। গত মঙ্গলবার বিকেলে ওয়ালমি শাকারাকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করেন ওই ব্র্যাক কর্মী। পরে আমরা তাকে উদ্ধার করে মধ্যপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির জিম্মায় দিয়েছি। বুধবার সকাল থেকে ওই ব্র্যাক কর্মীর খোঁজ মিলেনি। বাসায় তালা ঝুলছে। অফিসেও নেই তিনি।


এ বিষয়ে অভিযুক্ত অপর্ণা কুবির সাথে তার বাসা ও অফিসে গিয়ে পাওয়া যায়নি। পরে তার মুঠোফোন ০১৭২৪ ০৮৫৫৮৯ নাম্বারে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি গারো ভাষায় কথা বলেন। ফলে ভাষা কিছুই বোঝা যায়নি।
মধ্যপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ বলেন, ওয়ালমি শাকারা নামের এক গারো গৃহকর্মীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশি জিম্মায় দিয়েছেন বাসা মালিক। সে ব্র্যাকের সিও অপর্ণা কুবির বাসায় কাজ করতো। তার অভিযোগ অপর্ণা কুবি তার ওপর নির্যাতন চালিয়েছেন। ওই গৃহকর্মীকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে এবং তার বাবা-মাকে খবর দেয়া হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে ওই ব্র্যাক কর্মীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এবিষয়ে ব্র্যাকের ডিস্ট্রিক্ট কো-অর্ডিনেটর (বিডিসি) অমল কুমার দাম বলেন, বিষয়টি আমাদের অফিস সংশ্লিষ্ট না তবুও প্রাথমিক ভাবে নির্যাতনের বিষয়টি সত্য বলে জেনেছি। প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী তদন্ত ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট হেড অফিসে জানানো হয়েছে। যদি তার অপরাধ প্রমাণিত হয় তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়াও নির্যাতিত ওই গৃহকর্মীকে চিকিৎসা সহায়তাসহ তার পরিবার যদি চান তবে আইনী সহায়তা প্রদান করা হবে।
তিনি আরো বলেন, ওই গৃহকর্মী অপর্ণা কুবির মামাতো বোনের মেয়ে। তার পরিবারকে খবর দেয়া হয়েছে।