বীরগঞ্জে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে ভুট্টার গোডাউন করেছে প্রধান শিক্ষক, বিদ্যালয়ের জাতীয় পতাকার বেহাল দশা।

মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার সাতখামার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের শ্রেণিকক্ষে ক্লাস বন্ধ রেখে ভুট্টার গোডাউন হিসেবে ব্যবহৃত করছে প্রধান শিক্ষক নিতাই সাহা। বিষয়টি জানতে পেরে সোমবার দুপুর ১টায় ওই বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কন্দর্প নারায়ন রায়।

পরিদর্শন শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, শিক্ষার্থীদের ৪ টা পর্যন্ত পাঠদান করার কথা থাকলেও সাতখামার উচ্চ বিদ্যালয়ের সব কক্ষ তালাবদ্ধ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আর কাউকে পাই নি। পরে প্রধান শিক্ষককে বারবার ফোন দেওয়ার পরেও তিনি রিসিভ করেন নি।

এসময় একজন শিক্ষককে ডেকে এনে প্রধান শিক্ষককের রুমে বসতে হয়েছে। লোক মারফত প্রধান শিক্ষককে ডেকে আনা হয়। স্কুলঘরে ভুট্টার রাখার ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক জানায়, ঘরে ভুট্টা থাকার কারণে স্কুল বন্ধ রাখা হয়েছে। বিদ্যালয়ে সভাপতির নির্দেশে ভুট্টা রাখতে আমি বাধ্য হয়েছি। ভুট্টা রাখা শ্রেণিকক্ষটি দেখতে চাইলে চাবি নেই বলে এড়িয়ে যায় ওই প্রধান শিক্ষক।

বিদ্যালয়ের জাতীয় পতাকার বেহাল দশা সহ বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি দুইটি বেশ পুরোনো ও ছেঁড়ে গেছে। এ অবস্থা দেখে প্রধান শিক্ষককে তিরস্কার জানায় শিক্ষা অফিসার কন্দর্প নারায়ন রায়।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ও অভিভাবকরা জানান, রাজনৈতিক কর্মকান্ড ব্যতিত ছাড়া প্রধান শিক্ষক ঠিকমত স্কুলে আসে না ও শিক্ষার মান বেহাল দশা থেকে পরিত্রাণ পেতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এ ব্যাপারে স্কুল কমিটির সভাপতি সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।