নওগাঁর আত্রাইয়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় শিশু সহ পাঁচজন রোজাদার মুসল্লী আহত।

একেএম কামাল উদ্দিন টগর, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাইয়ে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় শিশু সহ পাঁচজন রোজাদার মুসল্লী আহত হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় ইফতারের পূর্বেআত্রাই উপজেলার ভোঁপাড়া ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় গুরুতর আহত মসজিদের ইমাম মৌলানা মোঃবজলুর রশিদ(42) মোঃ আজিজার রহমান (55),বেলী বেগম(55) আব্দুল মজিদ(57), শিশু বাচ্চা তামিম (6) ও মিনহাজ (8) কে নওগাঁর স্থানীয় ক্লিনিক ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রাম বাসী ও সমজিদ কমিটির সদস্যদের মধ্যে চাঁপা উত্তেজনা বিরাজ করছে।স্থানীয় সূত্রে জানা যায় গত সোমবার সন্ধ্যায় ইফতারের পূর্বমহুত্বে শিমুলিয়া গ্রামের মৃত কসরত্যুল্লা সরদার এর পুত্র মোঃ গোলামরসুল(62) এবং গোলাম রসুলের পুত্র মেহেদি হাসান (30)ও মিন্টু (27) মসজিদের সীমানায় সাজিনা গাছের সাজিনা পারাকে কেন্দ্র করে মসজিদে ইফতারে অংশ গ্রহনকারী মুসল্লি ও কমিটির লোকজনের সাথে কথাকাটি ও বাকবিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এরই জের ধরে সিমুলিয়া গ্রামের পূর্বপাড়া জামে মসজিদে প্রতিপক্ষের লোকজন ইফতারে অংশগ্রহন মুসল্লি ও মসজিদের ইমাম সহমসজিদ কমিটির লোকজনের উপর হামলা চালায়।

এতে আহত হয় সিমুলিয়া গ্রামের মুসল্লি মোঃ আজিজার রহমান (50) বেলি বেগম (60)আব্দুল মজিদ (57) শিশু বাচ্চা তামিম(5) মিনহাজ (8) আহতরা সকলেই সিমুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা। হামলাকারীরা এ সময় সমজিদের জ্বানালা দরজা ভাঙচুর করে। পরে গ্রামবাসীরা আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন।
এবিষয়ে শুক্রবার দুপুরে আত্রাই থানা অফিসার ইনচাজ (ওসি) মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনারস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ।
লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


এদিকে শুক্রবার দুপুরে সরজমিনে সংবাদ সংগ্রহে গেলে সাংবাদিকদের সিমুলিয়া গ্রামের পূর্বপাড়া জামে সমজিদ ইমাম মৌওলানা মোঃ বজলুর রশিদ ও মসজিদ কমিটির সদস্য মোঃআজিজার রহমান বলেন ঘটনার পর রাতেই আমরা থানায় যাই, থানার ওসি সাহেবকে আমরা বিষয়টি অবহিত করি।তিনি আমাদের একটি লিখিত অভিযোগ দিতে বলেন,আমরা ঐ রাতেই লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু থানা কর্তৃপক্ষ এখনও পযর্ন্ত কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেন নাই। আমরা রমজান মাসে নিরাপত্তাহীনতায় মসজিদে নামাজ আদায় ও ইফতার নিতে পারছিনা।এবিষয়ে গ্রামের শান্তির লক্ষে উর্দ্ধতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করছে গ্রামবাসী।