দিনাজপুর পার্বতীপুরে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ায় বাবার লাঠির আঘাতে সন্তানের মৃত্যু,বাবা আটক।

এনামুল মবিন(সবুজ)

স্টাফ রিপোর্টার.

দিনাজপুর পার্বতীপুরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সাংসারিক সমস্যা নিয়ে ঝগড়ায় দেলোয়ার হোসেন তাঁর স্ত্রী জাকিয়া খাতুনকে লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকলে সন্তান জাকারিয়া হোসেন(৫) মায়ের কাছে ছুটে এলে ওই লাঠির আঘাতে শিশু সন্তানটির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। এঘটনায় বাবা দেলোয়ার হোসেন আটক হয়েছেন।

বুধবার(২৩ নভেম্বর) সকালের দিকে পার্বতীপুর উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ শালন্দার স্কুলপাড়া গ্রামে তাদের বসবাড়িতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশু জাকারিয়া হোসেন উপজেলার ৫ নম্বর চন্ডিপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ সালন্দার স্কুলপাড়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেন ও জাকিয়া বেগম দম্পতির সন্তান।

জাকিয়া খাতুন অভিযোগ করেন, সকালে রান্না করতে দেরি হওয়ায় আমাকে মারধর করতে থাকে স্বামী। ছেলে জাকির আমার কাছে ছুটে এলে ওই লাঠির আঘাতে ছেলে মারা যায়।

পুলিশ ও স্বজন সূত্রে জানা যায়, সংসারে অভাব লেগে থাকায় প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া লাগতো। স্বামী দেলোয়ার হোসেন পেশায় একজন ইটভাটা শ্রমিক। প্রতিদিন তাকে ভাটায় কাজে যেতে হয়। দেলোয়ার হোসেন ও তার স্ত্রী জাকিয়া বেগমের নাস্তা প্রস্তুত করতে দেরি হওয়ায় এই নিয়ে দুই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে স্বামী উত্তেজিত হয়ে স্ত্রীকে পেটাতে শুরু করে। এ সময় স্ত্রী জাকিয়া বেগমের কাছে শিশুটি ছুটে এলে জাকারিয়ার মাথায় অসাবধানতাবশত আঘাত লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটির মৃত্যু হয়। স্ত্রী জাকিয়া বেগমও লাঠির আঘাতে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

পার্বতীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আবুল হাসনাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে । এ ঘটনায় পিতা দেলোয়ার হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। শিশুটির মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *