তারাগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় খালা-ভাগনি নিহত, আহত ৬

প্রতিনিধি তারাগঞ্জ (রংপুর):
রংপুরের তারাগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় খালা-ভাগনি নিহত হয়েছেন। গত বুধবার ১১টায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই ভাগনি সুরাইয়া আক্তারের (১১) মৃত্যু হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান খালা স্মৃতি আক্তার (২২)। খালা-ভাগনির এমন মৃত্যুতে শোক নেমে এসেছে ওই উপজেলার ইকরচালী ইউনিয়নের পাশাপাশি দুটি গ্রাম দোলাপাড়া ও জুম্মাপাড়ায়। গত বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের যমুনেশ্বরী নদীর বরাতি সেতুতে সুরাইয়াদের ইজিবাইককে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা শ্যামলী পরিবহনের একটি কোচ পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে হিঁচড়ে সেতুর পূর্বপ্রান্ত থেকে পশ্চিম প্রান্তে নিয়ে যায়। এতে সুরাইয়া ঘটনাস্থলে নিহত হয়। খালা স্মৃতি আক্তারসহ আহত হন ৬ জন। আহতদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হলে বিকেল ৩টার দিকে স্মৃতি আক্তারও মারা যান।
সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, নিহত সুরাইয়া আক্তারের বাড়ি উপজেলা সদর থেকে ৬ কিলোমিটার দূরে ইকরচালী ইউনিয়নের জুম্মাপাড়া গ্রামে। তার বাবা ভুট্টু মিয়া একজন দিনমজুর। তিন ভাইবোনের মধ্যে সুরাইয়া দ্বিতীয়। সে জগদীশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। সুরাইয়ার খালা স্মৃতি আক্তারের বাড়ি পাশের গ্রাম দোলাপাড়ায়। সুরাইয়া দীর্ঘদিন ধরে অ্যালার্জি রোগে ভুগছিল। খালার সঙ্গে সে ইজিবাইকযোগে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়ক দিয়ে তারাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক দেখাতে যাচ্ছিল। হাসপাতালের অদূরেই যমুনেশ্বরী নদীর বরাতি সেতুর ওপরে দুর্ঘটনাটি ঘটে।
ওই দিন নিহতদের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, চারদিক শোকের ছায়া। চলছে স্বজনদের আহাজারি, মাতম। সুরাইয়ার মা সুলতানা বেগম মেয়েকে হারানোর শোকে বারবার জ্ঞান হাড়িয়ে ফেলছেন। জ্ঞান ফিরলেই মা, মা, মা বলে বিলাপ করে বলছে, ‘মা আমার আমাক ছেড়ে কোথায় গেল। কলিজাটাক কাড়ি নিল। মেডিকেল যাবার ধরি মরার গাড়ি ছাওয়াটাক মোর মারিল। আল্লাহ এর বিচার কর। মেয়ে ও নাতনিকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন স্মৃতি আক্তারের মা সেলিনা বেগম। তিনি কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘ডাক্তার দেখার যাবার সময় গাড়ি চাপা দিয়া মোর বেটিক-নাতনিক মারি ফেলাইল। কেমন করি এই কষ্ট সহ্য হইবে। মুই কেমন করি যাদুর ঘরোক ছাড়ি থাকিম। মুই এর বিচার চাও।
তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি শেখ মো. মাহাবুব মোরশেদ বলেন, ‘ঘটনার পরেই শ্যামলী বাসের চালক পালিয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুজন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার শিকার গাড়ি থানায় রাখা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *