ডোমার রেলওয়ে স্টেশনে দুদকের অভিযান।


মোঃ সুমন ইসলাম প্রামানিক, ডোমার প্রতিনিধিঃ ট্রেনের টিকিট অনিয়ম রুখতে নীলফামারীর ডোমার রেলওয়ে স্টেশনে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। স্টেশনের বুকিং সহকারী রাশেদ’র বিরুদ্ধে কালোবাজারির সম্পৃক্ততা আছে বলে জানান অভিযান চালানো দুদকের প্রতিনিধি দল।
সোমবার (৬ই জুন) বিকালে সাধারণ যাত্রীদের অভিযোগের ভিত্তিতে ডোমার রেলওয়ে স্টেশনে রংপুর বিভাগীয় দুদক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরিফ’র নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল অভিযান পরিচালনা করে। এসময় স্টেশনের বুকিং অফিস ও টিকিট কাউন্টারে তল্লাশি করা হয়েছে।


অভিযান পরিচালনার সময় স্টেশনের টিকিট রেজিস্টার খাতা পরীক্ষা করে দেখেন দুদকের প্রতিনিধি দল। টিকিট রেজিস্টার খাতা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা যায়, রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিচারপতি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যাক্তিদের নামে একাধিক টিকিট বুকিংয়ের প্রমাণ মিলেছে।


দুদকের রংপুর বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরিফ বলেন, “আমরা সকাল থেকে সাধারণ যাত্রীর বেশে ডোমার রেলওয়ে স্টেশনে অভিযান পরিচালনা করে আসছি। সাধারণ যাত্রী বেশে আমরা স্টেশন এলাকার কালোবাজারি লিটনের কাছে নীলফামারী থেকে ঢাকার ৩টি টিকিট কিনেছি। লিটন ও মতি সহ আরো অনেকেই কালোবাজারির সাথে জড়িত রয়েছেন।”
তিনি আরও বলেন, “আমাদের কাছে অভিযোগ এসেছিলো স্টেশনে টিকিট কালোবাজারি হয় এবং সাধারণ যাত্রী কারো সুপারিশ ব্যতীত টিকিট পায় না। সরেজমিনে আমরা উল্লেখিত অভিযোগের সত্যতা ও স্টেশনের বুকিং সহকারী রাশেদের সম্পৃক্ত থাকার প্রমাণ পেয়েছি।”
ডোমার রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আশরাফুল ইসলাম জানান, অপরাধী যেই হোক আমি চাই তাকে আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদান করা হোক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *