ডিমলা ছাতুনামায় দৃশ্যমান চলাচলের রাস্তা ইট গেঁথে বন্ধ।। চরম বিপাকে মানুষজন

ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারী ডিমলা উপজেলা ৮ নং ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন ছাতুনামায় দৃশ্যমান চলাচলের রাস্তা ইট গেঁথে বন্ধ করে দেয়ায় চরম বিপাকে পরেছে কমলমতি শিক্ষার্থী সহ সর্বস্তরের জনসাধারণ ও গৃহপালিত পশু। এলাকাটির ভৌগোলিক দিক থেকে সেখানে রয়েছে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জন নেত্রী শেখ হাসিনা দেয়া মুজিব কেল্লা, মুজিব শতবর্ষের উপহারের ২৫০ টি ঘর,প্যারাগান এগ্রো লিমিটেড কোম্পানি জৈব সার উৎপাদন কারখানা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান। 

১৮ অক্টোবর (মঙ্গলবার) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ওই এলাকার মৃত্যু অহির উদ্দিন এর ছেলে নজরুল ইসলাম তার পৈত্রিক সম্পত্তি দাবি করে দীর্ঘদিনের দৃশ্যমান রাস্তাটি ইট গেঁথে বন্ধ করে দেয়। যার ফলে এলাকা জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে চরম অশান্তি ও ক্ষোভ। এ অমানবিক নিষ্ঠুরতা এলাকার মানুষ নিরবে সহ্য করতে না পেরে আইন হাতে তুলে না নিয়ে বিষয়টি অত্র ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান একরামুল হক চৌধুরী কে অবগত করেন। এসময় কথা হয়  আব্দুল মান্নান, তৈলদ্দিন, মিজানুর রহমান এর সঙ্গে তারা বলেন এই এলকায় আমরা অধিকাংশ মানুষ  গরীর ও অসহায়। নানা শ্রেণীর মানুষ নানা পেশায় জড়িত চলাচলের এ রাস্তাটি বন্ধ করলে আমরা হাটবো কোন দিকে আর সেওবা হাটবে কোন দিকে। দৃশ্যপট সমস্যাটি আসু সমাধান নিরসনের জন্য জমির মালিক কে নিয়ে এলাকার শান্তি বিরাজের লক্ষে সমাজের গন্যমান্য ও সুধীজনদের সমন্বয়ে এক বৈঠকের আয়োজন করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন ছাতুনামা জামে মসজিদ এর খতিব মাওঃ সফিকুল ইসলাম,ওয়ার্ড ইউপি সদস্য নুর হোসেন বাপই,ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়ন যুবলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সমাজ সেবক মনিরুজ্জামান মানিক, সাবেক ইউপি সদস্য আলা উদ্দিন,ইউপি সদস্য নুর ইসলাম, ইউপি সচিব সুবাস চন্দ্র রায়, প্যারাগন এগ্রো লিমিটেড এর ইনচার্জ সারোয়ার আলম, সুপার ভাইজার রবিউল ইসলাম সহ অনেকে। সভায় প্যারাগান এগ্রো লিমিটেড এর পক্ষ থেকে মানবিকতা ও জনস্বার্থে জমির মালিক কে প্রস্তাব রাখা হয় তার ৮ শতাংশ জমির পরিবর্তে অন্যত্রে ১২ শতাংশ জমি দেয়া, অথবা উচিত বাজার মূল্য অনুপাতে বেশি মূল্যে মূল্য চুকিয়ে দেয়া।এতে সে রাজি না হয়ে আকাশ চুম্মি দাম চেয়ে শান্তির পরিবেশ কে বিনষ্ট করে চলে যায়। এ অমানুবিকতার মান দন্ডে চলাচলের রাস্তাটি অতিদ্রুত খুলে দেয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসন ও জমি সংশ্লিষ্ট  কর্মকর্তাদের শুভ দৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকাবাসী। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *