ডিমলা খালিশায় সন্ন্যাসী মন্দির স্থাপন 

এপিএন টিভি ঃ ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারী ডিমলা উপজেলা ৭ নং খালিশা চাপানি ইউনিয়ন ছোট্ট খাতা বাবু পাড়ায় সন্ন্যাসী মন্দির স্থাপন করা হয়। 

বৃহস্পতিবার সকালে মন্দিনে প্রতিমা পরিদর্শন কালে চেয়ারম্যান সহিদুজ্জামান সরকার বলেন, বাংলাদেশ সাম্য মৈত্রীর দেশ,সকল ধর্মের মানুষ নিয়ে আমারা শান্তিতে বসবাস করতে স্বাছন্দবোধ  করি। আমরা একে অপরের পরিপূরক। তা ছাড়া আমাদের ধর্মেও বলা হয়েছে সংখ্যা গরিষ্ঠদের কাছে সংখ্যালঘুরা আমানত। তাদের জান মাল রক্ষা করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতি পূজা আনতে সরকারি আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা করে থাকেন। এর পাশাপাশি আমরাও অনেকে পূজা মন্ডব পরিদর্শন ও আর্থিক সহযোগিতা করে থাকি।

সন্ন্যাসী দেব পূজা সম্পর্কে জানতে চাইলে পূজা সম্পর্কে সম্পর্কে বিশিষ্ট সমাজ সেবি অনিতা রাণী, প্রসন্ন কুমার রায় ও প্রফুল্ল কুমার রায় বলেন সন্ন্যাসী দেবতা 

শিব

পরমেশ্বর; দৈব শক্তি, ধ্যান, শিল্পকলা, যোগ, কাল, ধ্বংস, পশু, পঞ্চভূত, নৃত্যের অধিপতি; অমঙ্গলের সর্বোচ্চ ধ্বংসকর্তা; দেবগণের প্রভু

ত্রিমূর্তি গোষ্ঠীর সদস্য

সর্বোচ্চ স্তরে শিবকে সর্বোৎকর্ষ, অপরিবর্তনশীল পরম ব্রহ্ম মনে করা হয়। ব্রহ্ম স্বরূপে পরমাত্মা শিব বিন্দুর ন্যায় অর্থাৎ নিরাকার,এই অবস্থায় শিবকে কল্পনাও করা যায়না,তিনি কালচক্র ও সংসারের সকল গুণ-অগুণ এর উর্দ্ধে। শিবের অনেকগুলি সদাশয় ও ভয়ঙ্কর মূর্তিও আছে।সদাশয় রূপে তিনি একজন সর্বজ্ঞ যোগী। তিনি কৈলাস পর্বতে সন্ন্যাসীর জীবন যাপন করেন।আবার গৃহস্থ রূপে তিনি পার্বতীর স্বামী। তার দুই পুত্র বর্তমান। এঁরা হলেন গণেশ ও কার্তিক। ভয়ঙ্কর রূপে তাকে প্রায়শই দৈত্যবিনাশী বলে বর্ণনা করা হয়। শিবকে যোগ, ধ্যান ও শিল্পকলার দেবতাও মনে করা হয়। এছাড়াও তিনি চিকিৎসা বিদ্যা ও কৃষিবিদ্যারও আবিষ্কারক।

শিবমূর্তির প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলি হল তাঁর তৃতীয় নয়ন, গলায় বাসুকী নাগ, জটায় অর্ধচন্দ্র, জটার উপর থেকে প্রবাহিত গঙ্গা, অস্ত্র ত্রিশূল ও বাদ্য ডমরু। শিবকে সাধারণত ‘শিবলিঙ্গ’ নামক বিমূর্ত প্রতীকে পূজা করা হয়।সমগ্র হিন্দু সমাজে শিবপূজা প্রচলিত আছে। ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা রাষ্ট্রে ও পাকিস্তানের কিছু অংশে শিবপূজার ব্যাপক প্রচলন লক্ষিত হয়। সনাতন ধর্মীয় শাস্ত্রসমূহে শিব পূজা কে সর্বশ্রেষ্ঠও সর্বাধিক ফলপ্রদ বলে বর্ণনা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *