ডিমলায় তিস্তা নদী নিয়ে গেল তিন পরিবারের বাড়ী, এখনো আতংক কাটেনি তাদের।

ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধিঃ কয়েক দিনের আকস্মিক বন্যায় খরস্রোতা তিস্তা নদী ক্ষণে ক্ষণে তার অপরুপ পাল্টালে ভিটে মাটি হারায় আলীর হোসেন, আঃ কাদের ও বাচ্চাযুগি। বর্তমানে তারা নিঃস্ব।

উক্ত ব্যক্তিদ্বয় নীফামারী ডিমলা উপজেলা ৭ নং খালিশা চাপানি ইউনিয়ন এর ছোটখাতা এলাকার বাসিন্দা। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যারা বাব দাদার বশতভিটার মোহে এখনো যারা সেখানে বসবাস করছেন বাড়ী ও তিস্তা নদী প্রায় ১০০ মিটার দুরত্ব। এ যেন নদীর সঙ্গে তাদের মিতালি সম্পর্ক।

অনেক তো বাড়িঘর হারিয়েছেন তারপরও কেন আপনারা সরে সরছেন এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আব্দুল লতিফ, আরফিনা, কাকলি, হামিদা ও বশতভিটে হারা আব্দুল কাদের প্রতিবেদকে জানায় সরে যাব কোথায়?কেউতো জায়গা দিতে চায়না। বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাদের মূখের দিকে তাকিয় তিস্তা নদী শাসন করেন তাহলে আমাদের কোন চিন্তা থাকবেনা।

শতশত একর জমি কেরে নিয়ে গেল তিস্তা। ছিল গোলা ভরা ধান গোয়াল ভরা গরু ও মহিষ, পুকুর ভরা মাছ সব কিছু হাড়িয়ে এখন পথের ফকির হয়ে গেলাম। আমাদের থাকার একটা বন্ধ বস্তু হলে আমরা এখান থেকে পরিবার পরিজন নিয়ে আশ্রায় নিতাম। এখনো সরকারি কোন কিছু অনুদান আমরা পাই নাই। এ ব্যাপারে কথা হয় খালিশা চাপানি ইউপি চেয়ারম্যান সহিদুজ্জামান সরকার এর সঙ্গে  তিনি বলেন পরিদর্শনে আমি ও নির্বাহী স্যার সহ এলাকাবাসির খোঁজ খবর নিয়েছি। সরকারি কোন বরাদ্দ এলে পৌঁছে দিব ইনশাআল্লাহ। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *