ডিমলায় জেলা প্রশাসকের এ্যাম্বুলেন্সের উদ্বোধন ও স্বপন বাঁধ পরিদর্শন কালে বন্যার্তদের মাঝে চাল বিতরণ।

ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধিঃ প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন “আমার গ্রাম আমার শহর” এই শ্লোগান গান কে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ের নাগরিকদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করনে ৯ নং টেপাখরিবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ময়নুল হক এর সুষ্ঠু পরিকল্পনায় ২০২১-২২ অর্থবছরের (এলজিএসপি-৩) এর অর্থায়নে ১১ লাখ ২০ হাজার টাকা ব্যয়ে ক্রয়কুত এয়ারকন্ডিশন এ্যাম্বুলেন্সটি অত্র ইউনিয়নবাসী শুধুমাত্র তেল দিয়ে রুগীরা এর সুবিধাভোগ করতে পারবে মর্মে এ্যাম্বুলেন্সটি ক্রয় করা হয়। 


রবিবার (১৯শে জুন) বিকালে এ্যাম্বুলেন্স এর শুভ উদ্বোধন ও আকস্মিক বন্যায় খরস্রোতা তিস্তা নদী উজানের ঢল নেমে এসে নদীর তীরবর্তী স্বপন বাঁধের ভেঙ্গে গেলে ইউনিয়নের তেলি বাজার এলাকার ১৫০ পরিবার বন্যার পানিতে পানি বন্দি হয়ে পরে।ফলে পরিবার গুলো রাস্তার দুই পাশে মানবেতর জীবনযাপন করছে। এরই ধারাবাহিকতায় তাদের কে খাদ্য সামগ্রী, বাঁধ নির্মাণ ও জনস্বার্থে এ্যাম্বুলেন্স উদ্বোধন এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া সামগ্রী বিতারণকরেন জেলা প্রশাসক ইয়াসিন আরেফীন।

এসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বেলায়েত হোসেন, জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আব্দুল করিম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইবনুল আবেদীন, ইউপি চেয়ারম্যান মইনুল হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেজবাহুর রহমান, উপসহকারী প্রকৌশলী (ত্রাণ শাখা)  ফেরদৌস আলম ছাড়াও অত্র ইউনিয়নের সকল গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 


অপর দিকে একই উপজেলার  ৭ নং খালিশা চাপানি ইউপি চেয়ারম্যান সহিদুজ্জামান সরকার এবং ৫ নং গয়াবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সামসুল  বলেন  বন্যার্ত পরিবারের খোঁজ খবর সর্বদা নিচ্ছি ত্রাণ আসা মাত্র পৌঁছে দেয়া হবে। তবে এ ক্ষেত্রে সরকারি অনুদানের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আশার আহবানও জানান তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *