ডিমলায় রবি মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা বিতরণের উদ্বোধন। 

ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ

নীলফামারীর ডিমলায় ২০২২-২৩ অর্থ বছরে  রবি মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় সরিষা, গম, ভূট্টা, সয়াবিন, শীতকালীন পেঁয়াজ এবং মুগডাল ফসল আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরন করা হয়েছে। 

সোমবার সকালে উপজেলা কৃষি অফিস চত্ত্বরে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের আয়োজনে, উপজেলার দশটি ইউনিয়নের ১৪ শত ৫০ জন কৃষকের মাঝে এসব ফসলের সার ও বীজ বিতরণের মাধ্যমে কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।  

কৃষকদের হাতে সার ও বীজ তুলে দিয়ে  মৌসুমের কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করেন, নীলফামারী-১ (ডোমার-ডিমলা) আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আফতাব উদ্দিন সরকার।

উদ্বোধনকালে দেখা যায়, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের নিজস্ব দুটি গুদাম ঘরের সামনে উপজেলা দশটি ইউনিয়নের সুবিধাভোগী কৃষকদের সারিবদ্ধ করে শান্তিপূর্ণভাবে সার ও বীজ বিতরণ করেন৷ সুশৃংখলভাবে কৃষি প্রণোদনার  উপকরণ বিতরণে কৃষক ও এলাকার সুশীল সমাজ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। 

বিতরণ কার্যক্রমের পূর্বে সংক্ষিপ্ত এক আলোচনা সভায় নির্বাহী কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন এঁর সভাপ্রধানে ও অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সেকেন্দার আলী৷ 

এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক সরকার মিন্টু৷ 

উল্লেখ্যঃ উপজেলার দশটি ইউনিয়নের মোট ৩ হাজার ৩ শত ৭০ জনের মধ্যে ৯শত গমচাষী প্রত্যেককে গমবীজ ২০ কেজি, ডিএপি সার ১০ ও এমওপি সার ১০ কেজি৷ ৯শত ভূট্টাচাষী প্রত্যেককে ভূট্টা বীজ ২ কেজি, ডিওপি সার ২০ ও এমওপি সার ১০ কেজি। ১৪ শত ৫০ জন সরিষা চাষী প্রত্যেককে সরিষা বীজ ১ কেজি, ডিওপি সার ১০ ও এমওপি সার ১০ কেজি। ২০ জন  সয়াবিন চাষী প্রত্যেককে ৮ কেজি সয়াবিন বীজ, ডিওপি সার ১০ ও এমওপি সার ১০ কেজি। ৪০ জন শীতকালীন পেঁয়াজ চাষী প্রত্যেককে ১ কেজি পেঁয়াজ বীজ,  ডিওপি সার ১০ ও এমপি সার ১০ কেজি এবং ৬০ জন মুগডাল চাষী প্রত্যেককে ৫ কেজি মুগডাল বীজ, ডিওপি সার ১০ ও এমওপি সার ৫ কেজি করে বিতরণ করা হয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *