ডিমলায় জমি জবর দখলের অভিযোগ 

ডিমলা নীলফামারী প্রতিনিধিঃ পত্রিক জমির মালিক হওয়া শর্তেও জবর দখলের চেষ্টা কনে রেজাউল ইসলাম (৪৫) গং মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

অভিযোগ কারী মনিরুজ্জামান নীলফামারী ডিমলা উপজেলা ৬ নং নাউতারা ইউনিয়ন সাতজান ৭ নং ওয়ার্ড  মোঃ সামসুল হক এর পুত্র  তিনি বলেন ৩৭ নং জে এল ২১৪ নং খতিয়ান ৭২২১ নং দাগে ১২ শতাংশ জমি এর মধ্যে ৮ শতাংশ জমি  আমাদের প্রতিবেশী মৃত্যু রশিদুল ইসলাম (ভাকু) এর কাছে বিক্রি করে গেছেন আমার মরহুম পিতা সামসুল হক এর দাদা। বর্তমানে তারা দুনিয়াতে কেহই বেঁচে নেই।  

জমির কবলা মূলে দেখা যায় উক্ত জমিতে ১২ শতাংশের মধ্যে ৮ শতাংশ উপরোক্ত ব্যক্তির নামে কবলা হয়। অবশিষ্ট ৪ শতাংশ জমি আমাদের পয়ত্রিক রয়েছে। এ নিয়ে একাধিক বার শালিস বসেছিল। গন্যমান্য বৃক্তিবর্গের সামনে তারা আমাদের জমি ছেড়ে দেয়ার সম্মতি দিলেও বাস্তবে তারা ছেড়ে দেন না। এমতাবস্থায় গত ২৮ জুলাই ২০২২ ইং তারিখে সকালে আমরা আমাদের জমির উপর উঠে জমি সার্ভেয়ার কতৃক ৪ শতাশং বের করে তাতে হাল চাষ করে ধান বীজ রোপন করি।

বিকাল বেলা আমার চাচাতো ভাই তইবুল ইসলাম আছরের নামাজ শেষে বের হয়ে আশার পথে মৃত্যু রশিদুল ইসলাম (ভাকু) এর ছেলে  রেজাউল ইসলাম অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ এবং গায়ে হাত তোলে।এলাকার  লোকজন এগিয়ে আসলে সে পালিয়ে যায়। ২৯ তারিখে সাড়ে ১০ টায়  রেজাউল ইসলাম তার ভাই মর্তজা আলী (৪০) সাতজান সরকারি  প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী  শিক্ষক , শরিফুল ইসলাম (৩০) সাইফুল ইসলাম (২৩) রাজ্জাকুল ইসলাম (৩৫) তার চাচা এলাহি বকস (৬৫) দেশীয় অস্ত্র পাতি,লাঠি সোঠা নিয়ে জমিতে গিয়ে আমাদের রোপনকৃত ধান বীজ তুলার চেষ্টা করে। এতে আমরা বাধা প্রদান করলে নিজেরা নিজে মারা মারী করে আমাদের ৭ জনকে আসামি করে ডিমলা থানায় মিথ্যা ও বানোয়াট  মামলা দায়ের করে।যার মামলা নং ১৬৯ 

বিষয়টি নিয়ে গ্রাম্য মহত প্রধানগন মিমাংসার চেষ্টা করে  এবং সিদ্ধান্ত হয় তারা তাদের মামলা প্রত্যাহার করবে। এরা এত ফ্যসাদসৃষ্টিকারী ও মামলাবাজ উপরে মিমাংসা কথা বলে ভিতরে মামলা রেকর্ড  করে। সমাজের বিশৃঙ্খলা ও ফেতনা সৃষ্টিকারী ভূমিদস্যুতাদের দমনে ন্যায় বিচার চাই। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *