জামিনে মুক্তি পেয়ে বাদীকে হুমকি।

আশরাফুল ইসলাম, তারাগঞ্জ প্রতিনিধিঃ রংপুরের তারাগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মারধরের ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীরা জামিনে বের হয়ে এসে বাদীকে মেরে ফেলাসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি উপজেলার ইকরচালী ইউনিয়নের বরাতী পালপাড়া গ্রামে ঘটেছে। হুমকী দেওয়ায় গত ১৩মে তারাগঞ্জ থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারণ ডায়রী করেছে ভুক্তভোগী।


বাদী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ইকরচালী ইউনিয়নের বরাতী পালপাড়া গ্রামের হরিপদ পালের আবাদি ৩৯২ শতক জমি নিয়ে তাঁর কাকাত ভাইয়ের বউ বিনারানী পালের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। মামলারত জমিতে বিনারানী পাল আইন অমান্য করে গত ৭মে ধান কাটতে গেলে মারপিটের ঘটনায় পর দিন ৮মে হরিপদ পাল বাদী হয়ে ৫জনকে আসামী করে তারাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করে থানা পুলিশ ১নং আসমী বিনারানী পাল ও ২নং আসামী বিজন পালকে ১১মে গ্রেফতার করে ওই দিন জেল হাজতে প্রেরন করে। আসামীরা জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়িতে এসে বাদীকে মেরে ফেলাসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকী প্রদর্শন করছে। একারণে হরিপদ পাল তার পরিবার নিয়ে আতংকিত হয়ে বসবাস করছে। ফলে তিনি ও তারা পরিবারের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে তারাগঞ্জ থানা একটি সাধারণ ডায়রী করেছে।


ভুক্তভোগী হরিপদ পাল বলেন, ওই জমি পৈতৃক সূত্রে মালিক আমি। অথচ আমার চাচাত ভাইয়ের বউ অন্যায়ভাবে ওই জমি তাঁদের বলে দাবি করে আসছে। ওই জমি নিয়ে বিরধের জেরধরে বিনারানী পাল ও বিজন পালসহ আরো কয়েক জন আমাদের ওপর হামলা চালিয়ে মারধর করে। আমি থানায় মামলা করলে পুলিশ ১ও২নং আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করে। আসামীরা জামিনে বের হয়ে এসে আমাকে মেরেফেলাসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকী দিচ্ছে। তাই নিরুপায় হয়ে আমার ও আমার পরিবারের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে গত ১৩মে তারাগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেছি।
এ ব্যাপারে তারাগঞ্জ থানার ওসি সুশান্ত কুমার সরকার বলেন, হুমকির ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়েরী হয়েছে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।