কোথাও আশ্রয় না পেয়ে মাদ্রাসার ঘরে বসবাস করছে একটি পরিবার।

আশরাফুল ইসলাম, প্রতিনিধি তারাগঞ্জঃ রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের দক্ষিণ নাড়ানজন মকুলের বাজার নামক এলাকার একটি পরিবার দীর্ঘদিন থেকে স্ত্রী, সন্তান নিয়ে মাদ্রাসার ঘরে বসবাস করছে। ওই পরিবারটি খেয়ে না খেয়ে দিনাতি পাত করছে।
স্থানীয়রা জানায়, শুনেছি প্রধান মন্ত্রী নাকি ভূমিহীনদের জমি ও ঘর দেয়। কিন্তু আমাদের এই মাদ্রাসার ঘরে দীর্ঘদিন ধরে একটি অসহায় পরিবার বসবাস করলেও খোঁজ নেয়নি কেউ তার। এছাড়াও তারা বলেন, ৩ থেকে ৫ শতক জমি আছে ঘর নেই এমন ব্যাক্তিদের আশ্রয় প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারী অর্থ বরাদ্দ থাকলেও সঠিক ভাবে বিতরণ না করায় অসচ্ছলদের তালিকায় সচ্ছলরাই বেশী। ঘটনাটি দেখে এমন মন্তব্য করছেন এলাকার সুধি-সমাজসহ সাধারণ মানুষজন।


খোঁজনিয়ে জানাগেছে, তারাগঞ্জ সদর থেকে ১৫কিলোমিটার দূরে উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের নাড়ানজন গ্রাম। সেখানে গিয়ে দেখা যায় ওই এলাকার মরহুম আতিয়ার রহমান প্রামানিকের ছেলে আব্দুল করিম কবিরাজ তার পরিবার নিয়ে মাদ্রাসার ঘরে বসবাস করছে। সুধিসমাজের সাধারণ লোকজন বলেন, জায়গা- জমি থেকেও নাই ফলে স্ত্রী সন্তান নিয়ে মাদ্রাসার ঘরে বসবাস করছে তিনি।


ভুক্তভোগি আব্দুল করিম বলেন, ৬২তে ৬শতক ৯২তে ৩শতক জমি পৈতিক সূত্রে আমার নামে আছে। জোরপূর্বক দখল করছে একটি প্রভাবশালী মহলের মধ্যে জিয়ারুল হক, জবেদ, আজি মিয়া, আলহাজ্ব উদ্দিনগণরা এতে আমি অসহায়। বিধায় আমি মাদ্রাসার ঘরে দীর্ঘদিন থেকে স্ত্রী, ৪সন্তান নিয়ে বসবাস করছি।
এঘটনার সংক্রান্তে ওই এলাকার বাসিন্দা জাতীয় সমাজতন্ত্রীক দল জাসদ মনোনীত চেয়ারম্যান কুমারেশ রায় বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে একজন দরিদ্র পরিবার তার স্ত্রী সন্তান নিয়ে মাদ্রাসার ঘরে থাকে আসলে বিষয়টি খুবেই দুঃখজনক।
উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ইলোরা ইয়াছমিন বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা ছিল না খোজ নিয়ে দেখব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *