কিশোরগঞ্জ থানায় নবাগত অফিসার ইনচার্জ’র আগমন উপলক্ষে মতবিনিময় সভা।

রউফুল আলম, স্টাফ রিপোর্টারঃ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ থানায় নবাগত অফিসার ইনচার্জ রাজীব কুমার রায়ের আগমন উপলক্ষে মতবিনিময় সভা থানা কনফারেন্স রুমে দিবাগত শুক্রবার রাত ৮.৩০ টায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। আয়োজনে কিশোরগঞ্জ থানা।
রাজীব কুমার রায়ের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) মোহাম্মদ সারোয়ার আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কিশোরগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি জননেতা জাকির হোসেন বাবুল, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মশিয়ার রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম বাব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাপলা আক্তার, এমপি প্রতিনিধি রেজাউল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান, কিশোরগঞ্জ প্রেস ক্লাব সভাপতি মোঃ আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রউফুল আলম, সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক মোঃ জিন্নুর রহমান, এনজিও কর্মকর্তা সানজিদা আনসারী, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা, মসজিদের ইমাম, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান, উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বার, বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকসহ সুসীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ।


মতবিনিময় সভায় ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ কিশোরগঞ্জ এরিয়ার প্রোগ্রাম অফিসার সানজিদা আনসারী বলেন, ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ অংশীদারিত্বে বিশ্বাসী একটি সংস্থা,  যার লক্ষ্য হলো সৃষ্টিকর্তার প্রদর্শিত পথ অনুসরণ করে কথা, কাজ ও জীবনাচরণের মধ্য দিয়ে দরিদ্র ও নিপিড়ীত মানুষের ইতিবাচক পরিবর্তন আনা, ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠা করা, সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য সরকারী কাজে সহায়তা করা। তিনি আরো জানান, এখানে আমরা দরিদ্র ও নিপিড়ীত মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শিশু সুরক্ষা শিশু শ্রম ও বাল্যবিবাহ বন্ধে কাজ করছি।

ছয় ছয়বারের সফল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ ফজলার রহমান মাদক,জুয়ার বিভিন্ন পয়েন্ট উল্লেখ করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানান, অন্যান্য চেয়ারম্যানগণ একমত পোষণ করেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল বলেন, আমি যখন উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলাম, তখন ‘ কমিউনিটি পুলিশিং’ গঠণ করা হয়েছিল।  ওই সময় এলাকায় চুরি, ডাকাতি, মাদক ও জুয়া বন্ধ হয়েছিল।  এমনকি আমরা ডিআইজি মহোদ্বয়কে এনে বিশাল সমাবেশে কিশোরগঞ্জ উপজেলাকে মাদক ও জুয়ামুক্ত ঘোষণা করেছিলাম৷ কিন্তু সময় পরিবর্তনের সাথে সাথে আবার ও চুরি, মাদক, জুয়া বৃদ্ধি পেয়েছে। যা নিরসনে পদক্ষেপ নেয়া জরুরি।

প্রধান অতিথি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ সারোয়ার আলম মতবিময় সভার আয়োজন করায় নবাগত অফিসার ইনচার্জকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এই উপজেলার সমস্যাগুলো আমি মার্ক করেছি। অবশ্যই এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেয়া হবে। আইন শৃৃঙ্খলা রক্ষায় বাল্য বিবাহ বন্ধে দিকনির্দেশনা দেন। থানায় ন্যায় পাইতে ব্যর্থ হলে তাঁর দপ্তরে যোগাযোগের কথা বলেন।

সভার সভাপতি রাজীব কুমার রায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার শান্তি কামনা করে বলেন, উপজেলার সবার জন্য আমার দপ্তর উন্মুক্ত রইল। দালাল লাগবে না, দালাল থাকবেনা, যে কোন সমস্যা সনাধানে আমাকে অবগত করবেন, আইন শৃঙ্খলার বিভিন্ন সার্বিক দিক তুলে ধরে বলেন, যে কয় বছরই থাকি আপনাদের সহযোগিতা পেলে এই থানাকে মডেল থানায় রুপান্তর করার ঘোষণা দেন। সঞ্চলনায় ছিলেন, অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) এস.এম শরীফ।