আটোয়ারীতে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত।

মোঃ ইউসুফ আলী, আটোয়ারী(পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)’র প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা বিএনপি’র আয়োজনে সোমবার (৩০ মে) সন্ধায় দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক ও মির্জাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এ.জেড.এম. বজলুর রহমান জাহেদ এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপি আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব ও তোড়িয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ¦ কুদরত-ই-খুদা।

আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপি’র অন্যতম সদস্য অ্যাডভোকেট আশরাফুল ইসলাম, আব্দুল্যাহেল বাকী, জহিরুল ইসলাম, কেরামত আলী, নজরুল ইসলাম দুলাল, বদিউজ্জামান মানিক, শাহাদত হোসেন সাজ্জাদ প্রমুখ।আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। বক্তারা বলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সাবেক সেনা প্রধান জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদৎ বার্ষিকী আজ। ১৯৮১ সালের ৩ মে এক ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে চট্রগ্রাম সার্কিট হাউসে নির্মমভাবে নিহত হন তিনি। তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা। জিয়াউর রহমান ১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বাংলাদেশের বগুড়া জেলার নশিপুর ইউনিয়নের বাগবাড়ী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

তার পিতার নাম ছিল মনসুর রহমান এবং মাতার নাম ছিল জাহানারা খাতুন ওরফে রানী। পাঁচ ভাইদের মধ্যে জিয়াউর রহমান ছিলেন দ্বিতীয়। তার পিতা কলকাতা শহরে এক সরকারি দপ্তরে রসায়নবিদ রুপে কর্মরত ছিলেন। তার শৈশবের কিছুকাল বগুড়ার গ্রামে ও কিছুকাল কলকাতা নগরীতে অতিবাহিত হয়। ১৯৭৮ সালের ১লা সেপ্টেম্বর তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি চার বছর বাংলাদেশ শাসন করার পর ১৯৮১ সালের ৩ মে এক ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে চট্রগ্রামে নির্মমভাবে নিহত হন। আলোচনা শেষে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের রুহের মাগফেরাত ও বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা সহ দেশ ও জাতীর কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন উপজেলা ওলামাদলের সভাপতি মাওলানা সোলায়মান আলী।