আটোয়ারীতে মইনুল হকের হত্যাকান্ডের বিচার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন।

আটোয়ারী (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে মোঃ মইনুল হক-এর হত্যাকান্ডের বিচার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। বুধবার (২০ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় আটোয়ারী উপজেলা প্রেস ক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, নিহত মইনুল হকের ছোট ভাই মোঃ জলিল উদ্দীন। তিনি বলেন, পুর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ১১ এপ্রিল ২০২২ সকালে শিকটিহাড়ী – মির্জাপুর যাওয়ার কাঁচা রাস্তা সংলগ্ন দানাবীর কবরস্থানের পুকুরপাড়ের দক্ষিণ পূর্ব কোণে আব্দুল করিমের বোপনকৃত পাটক্ষেতে আমার বড়ভাই আনোয়ারকে একা পাইয়া আসামী আনিছুর রহমান (৩৮), আনোয়ার হোসেন (৪২), আকিবুল (৩২) পিতা আবুল করিম, মাসুদ রানা (মাসাফ)(৩৫), মশিউর রহমান(৩২) পিতা আব্দুস সাত্তার, আব্দুল করিম(৬০), আব্দুর রহিম (৫৭) পিতা পেশু মোহাম্মদ, লাকী বেগম(৩২)স্বামী আনিছুর রহমান, পারভীন বেগম (৩৬) স্বামী আনোয়ার হোসেন, আকলিমা খাতুন (৫৫) স্বামী আব্দুল করিম, নাসিমা (৫২) স্বামী আব্দুর রহিম, সর্বসাং দানাবীর উপজেলা আটোয়ারী জেলা পঞ্চগড় গণ মারপিট করে।

সংবাদ পেয়ে মেঝো ভাই মোঃ মইনুল হক তার ব্যবহৃত হিরো প্যাশন প্রো মোটর সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে যায়। এরই মধ্যে উল্লেখিত আসামীরা তাদের হাতে থাকা লোহার রডও বাঁশের লাঠি দ্বারা আমার বড় ভাই আনোয়ারকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাথারী মারপিট করিয়া গুরুতর জখম করিলে সে মাটিতে পড়িয়া যায়। তখন আমার মেঝো ভাই মইনুল হক বড় ভাইকে রক্ষার চেষ্টা করলে সকল আসামীগণ তাকে ঘিরিয়া ধরে মারপিটসহ কামড়িয়ে রক্তাক্ত জখম করে। ঐ সময় জীবন রক্ষার্থে মেঝে ভাই মইনুল হক ও বড় ভাই আনোয়ার হোসেন কৌশলে আসামীদের নিকট হতে মোটর সাইকেল নিয়ে পালানোর সময় আসামীরা লোহার রড ও বাাঁশের লাঠি হাতে নিয়ে ধাওয়া করে। ধাওয়া খেয়ে ঘটনাস্থল হতে প্রায় ৪০০গজ পশ্চিমে শিকটিহাড়ী রোডের দক্ষিণ পাশের একটি পাট ক্ষেতে মোটর সাইকেল সহ লুটিয়ে পড়ে। স্থানীয় লোকজন সেখান থেকে আমার দুই ভাইকে উদ্ধার করে আটোয়ারী হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

কর্তব্যরত চিকিৎসক আমার মেঝো ভাই মইনুল হককে মৃত ঘোষনা করেন। আটোয়ারী থানার পুলিশ খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে মেঝো ভাই মইনুল হকের লাশের রিপোর্ট প্রস্তুত করেন এবং লাগ মর্গে প্রেরণ করেন। নিহত মইনুল হক একজন পুলিশ সদস্য বলে তিনি উল্লেখ করেন। ঐ দিনেই মেঝো ভাইয়ের স্ত্রী মোছাঃ মর্জিনা পারভীন বাদী হয়ে ১১ জনকে আসামী করে আটোয়ারী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ৫/৪৪, তারিখ: ১১/০৪/২০২২। পরিবারের সদস্যরা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সকল আসামীদের গ্রেফতার সহ সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে নিহত মইনুল হকের বড় ছেলে মেহেদী হাসান, মইনুলের বড় ভাই আনোয়ার হোসেন, পরিবারের অন্যান্য সদস্যগণ সহ উপজেলার দু’টি প্রেসক্লাবের প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। নিহত মইনুল হক উপজেলার ধামোর ইউনিয়নের দানাবীর গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাব এর দ্বিতীয় পুত্র।