আটোয়ারীতে ঐতিহাসিক সাতখামার ঝলঝলি কবরস্থান হতে ৭টি কঙ্কাল চুরি


মোঃ ইউসুফ আলী,(পঞ্চগড়)প্রতিনিধি ঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের ঐতিহাসিক সাতখামার ঝলঝলি কবরস্থান হতে ৭টি কবর হতে ৭টি লাশের কঙ্কাল চুরি হয়েছে। আরো ৩টি কবরের মাটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে কিন্তু কঙ্কাল নিয়ে যায়নি চোরেরা। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার(৫সেপ্টেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে। সোমবার(৫ সেপ্টেম্বর) গভীর রাতে মুসলধারে বৃষ্টি পড়ছিল, সেই সময় বিদ্যুৎ ছিল না। এই সুযোগে চোরেরা সাতখামার মাদরাসা সংলগ্ন ঝলঝলি পুকুর পাড় কবরস্থান হতে ২ হতে ৩ বছরের পুরোনো কবরগুলো হতে কঙ্কাল চুরি করে। কঙ্কাল চুরি করার পর চোরেরা ঝলঝলি পুকুরে গোসল সেরে তাদের পরনের কাপড়গুলো ফেলে পালিয়ে গেছে। গতকাল মঙ্গলবার(৬ সেপ্টেম্বর) সকালে ঝলঝলি কবরস্থানে কুকুরের ডাক শুনে এলাকার লোকজন দেখতে পায় কবরগুলোর মাটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। কবরগুলো থেকে কঙ্কাল চুরি হয়েছে শুনে কবর দেওয়া মৃত ব্যক্তিদের পরিবারের লোকজন, আত্মীয় স্বজন, প্রতিবেশী সহ শত শত উৎসুক জনতা কবরস্থানে ভিড় জমায়। যে কবরগুলো হতে কঙ্কাল চুরি হয়েছে সেই কবরগুলোতে মাটি ভরাট করে দেওয়া হয়েছে। কঙ্কাল চুরি যাওয়া মৃত ব্যক্তিদের পরিবারের লোকজন নিজ উদ্যোগে এ কাজগুলো করেছেন। খবর পেয়ে আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মুুসফিকুর আলম হালিম ও আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সোহেল রানা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ইউএনও বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার আশ^াস দেন। এ ব্যাপারে আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, সাতখামার ঝলঝলি কবরস্থান হতে কঙ্কাল চুরির খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ওই কবরস্থান হতে ৭টি কবর থেকে ৭টি লাশের কঙ্কাল চুরি হয়েছে, আরো ৩টি কবরের মাটি সরিয়ে রাখলেও চোরেরা লাশের কঙ্কাল নিয়ে যায়নি। এ ঘটনায় একটি জিডি করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *